বিএনপির তিনজন শীর্ষ নেতাসহ পাঁচজন আটক

Image caption খালেদা জিয়ার গুলশানের অফিস ঘিরে রেখেছে পুলিশ
Image caption আটক হওয়া তিন বিএনপি নেতা: মওদুদ আহমেদ, রফিকুল ইসলাম মিয়া এবং এম কে আনোয়ার

বাংলাদেশের প্রধান বিরোধী দল বিএনপি জানিয়েছে, দলের বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ নেতাকে আটক করে পুলিশী হেফাজতে রেখেছে পুলিশ।

বিরোধী নেত্রী খালেদা জিয়ার প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান বিবিসি বাংলাকে জানান, দলের নেতা মওদুদ আহমেদ, এম কে আনোয়ার এবং রফিকুল ইসলাম মিয়াকে আটক করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, গুলশানে বিরোধী দলীয় নেত্রী খালেদা জিয়ার অফিসও ঘেরাও করে রেখেছে পুলিশ। এছাড়া দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, দলের নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায় এবং মির্জা আব্বাসের বাড়ীতেও পুলিশ হানা দিয়েছে।

রাতে আবদুল ‌আওয়াল মিন্টু ও বিরোধী নেতার বিশেষ সহকারী শিমুল বিশ্বাসকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

মওদুদ আহমেদকে গ্রেফতার করা হয় ঢাকায় দৈনিক প্রথম আলোর এক অনুষ্ঠানে যোগদান শেষে বেরিয়ে আসার সময়।

মওদুদ আহমেদের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা শহীদুল ইসলাম বিবিসি বাংলাকে জানান, সোনারগাঁও হোটেলে প্রথম আলোর অনুষ্ঠান থেকে বেরিয়ে আসার পর পুলিশ তাঁর গাড়ীর পথরোধ করে।

এরপর পুলিশের একটি গাড়ীতে তুলে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয়।

ঢাকায় পুলিশের একজন কর্মকর্তা তিন বিএনপি নেতাকে আটক করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মওদুদ আহমেদকে ঢাকার মিন্টো রোডে গোয়েন্দা পুলিশের দফতরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য বিএনপির নেতৃত্বাধীন বিরোধী জোট রবিবার থেকে বাংলাদেশে আবারও তিন দিনে হরতালের ডাক দেয়ার পর এদের গ্রেফতার করা হলো।

সরকারের তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বিবিসিকে জানান, গত দুটি হরতালে যেভাবে সহিংসতা হয়েছে, বিরোধী দলের এবারের হরতালেও সেরকম সহিংসতার আশংকা আছে। সহিংসতা প্রতিরোধের লক্ষ্যেই সরকার এই পদক্ষেপ নিয়েছে।

বিএনপির তরফ থেকে ঘটনার ব্যাপারে এখনো কোন আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি। তবে রাতেই দলের তরফ থেকে একটি সংবাদ সম্মেলন করা হতে পারে বলে জানা গেছে।