যুক্তরাষ্ট্রের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে রাশিয়া

pro russian activist ছবির কপিরাইট AFP
Image caption ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে রুশপন্থী একজন বিক্ষোভকারী।

ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে রাশিয়া হস্তক্ষেপ করেছে বলে যে অভিযোগ করেছে যুক্তরাষ্ট্র, তা নাকচ করে দিয়েছে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সাথে সোমবার এক ফোনালাপের সময় মি. ওবামাকে রুশ প্রেসিডেন্ট আরো বলেছেন যে, প্রকৃত কোন তথ্য-প্রমাণ ছাড়াই ক্রেমলিনের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ আনা হয়েছে।

ওয়াশিংটন জানিয়েছে রাশিয়ার উপরে নতুন করে আরো নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা ভাবছে অ্যামেরিকা ও ইউরোপ।

ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে চলমান বিক্ষোভ ও অস্থিরতায় রাশিয়ার ভূমিকা পর্যবেক্ষণের প্রেক্ষিতেই রাশিয়ার উপরে আরো নিষেধাজ্ঞা আরোপের ব্যাপারে ভাবছে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপ।

ইইউ-এর পররাষ্ট্র মন্ত্রী সোমবার বলেছেন, রাশিয়ার আরো কয়েকজন ব্যক্তির বিরুদ্ধে এই নিষেধাজ্ঞা দেয়া হবে।

তবে, ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে রুশ-পন্থীদের বিক্ষোভকে ঠেকাতে যে পদক্ষেপ নিয়েছে তাকে ‘সংযমী’ আখ্যায়িত করে ইউক্রেন সরকারের প্রশংসা করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

এদিকে দেশটির পূর্বাঞ্চলে চলমান বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণে আনতে সেখানে শান্তিরক্ষী পাঠানোর জন্যে জাতিসংঘকে অনুরোধ করেছে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ওলেকসন্দর তুর্চিনভ।

জাতিসংঘে নিয়োজিত ইউক্রেনের দূত ইয়ুরি সের্গেইয়েভ বিবিসিকে দেয়া সাক্ষাতকারে বলেছেন, পরিস্থিতি সামাল দিতে কিয়েভের আসলেই বহির্দেশীয় সেনা সহায়তা দরকার।

তবে তিনি স্বীকার করেন যে, জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী পাঠানোর সম্ভাবনা নেই বললেই চলে

ইউক্রেন থেকে আলাদা হয়ে রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত হবার দাবিতে ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলের কয়েকটি শহরে মাসাধিক কাল ধরে চলছে বিক্ষোভ। সেই বিক্ষোভ তীব্র রূপ নেয়ায় তা দমনের জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে দেশটির সরকার।

ইউক্রেন বলছে, ক্রাইমিয়ার মত আর কোন অঞ্চলকে তারা আর হাতছাড়া করতে চায় না।