ব্রিটিশ সাহায্যকর্মীর শিরশ্ছেদ করেছে আইএস জঙ্গিরা

সিরিয়া থেকে গতবছরের মার্চে মি. হাইনেজকে অপহরণ করা হয়
ছবির ক্যাপশান,

সিরিয়া থেকে গতবছরের মার্চে মি. হাইনেজকে অপহরণ করা হয়

ইসলামিক স্টেট জঙ্গিরা একটি ভিডিও চিত্র প্রকাশ করেছে যেখানে দেখা যাচ্ছে তারা ডেভিড হেইন্‌স নামের একজন ব্রিটিশ সাহায্য কর্মীর শিরশ্ছেদ করেছে যাকে গতবছরের মার্চে সিরিয়া থেকে অপহরণ করা হয়েছিল।

ব্রিটিশ সরকার বলছে, তারা ওই ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করে দেখছেন।

এই হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন। শনিবার রাতে ওই ভিডিওটি প্রকাশ করা হয়।

ভিডিওতে ডেভিড হেইন্‌সের পাশেই একজন মুখোশধারী ব্যক্তিকে দাড়িয়ে থাকতে দেখা যায়, যার উচ্চারণে ব্রিটিশ টান রয়েছে।

কয়েকদিন আগে আমেরিকান সাংবাদিক স্টিভেন সটলফের হত্যাকাণ্ডের যে ভিডিও প্রচার করা হয়, সেখানে ইসলামিক স্টেট জঙ্গিরা দাবি করেছিল যে, তাদের উপর হামলা বন্ধ না হলে, ব্রিটিশ সাহায্য কর্মী ডেভিড হেইন্‌সকে হত্যা করা হবে।

চুয়াল্লিশ বছর বয়স্ক মি. হেইন্‌স ফরাসি একটি সাহায্য সংস্থার হয়ে মানবিক সহায়তা দিতে সিরিয়ার একটি গ্রামে কাজ করার সময় গতবছরের মার্চে অপহৃত হন।

ছবির ক্যাপশান,

ভিডিওতে ডেভিড হাইনেজের পাশেই একজন মুখোশধারী ব্যক্তিকে দাড়িয়ে থাকতে দেখা যায়

শুক্রবারই অপহরণকারীদের উদ্দেশ্যে মি. হেইন্‌সের পরিবার আবেদন জানিয়েছিল যে, তাদের সাথে যেন সরাসরি যোগাযোগ করা হয়। কিন্তু এর কয়েকঘন্টা পরেই হত্যাকাণ্ডটি ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ওই ভিডিওতে আরো একজন ব্রিটিশ জিম্মিকে হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে।

আইএসের বিরুদ্ধে আমেরিকান হামলায় সহযোগিতা আর কুর্দিদের সহায়তার জবাবে এই হত্যা করা হচ্ছে বলে একজন মুখোশধারী জঙ্গি ভিডিওতে বক্তব্য দিয়েছে।

এর আগে দুজন আমেরিকান সাংবাদিকের শিরশ্ছেদ করেছে ইসলামিক স্টেট জঙ্গিরা। ইরাকে তাদের উপর হামলা বন্ধ না হলে তারা আরো হত্যাকাণ্ড ঘটানোরও ঘোষণা দিয়েছে।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন এই হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানিয়ে একে শয়তানের কর্মকাণ্ড বলে বর্ণনা করেছেন।

হত্যাকারীদের ধরতে সবকিছুই করা হবে বলে তিনি ঘোষণা দিয়েছেন।

ব্রিটিশ পররাষ্ট্র দপ্তর জানিয়েছে যে, তারা ওই ভিডিওটির সত্যতা যাচাইয়ের কাজ করছেন।

মি. হেইন্‌সের পরিবারকে সর্বাত্মক সহায়তারও আশ্বাস দিয়েছেন তারা।