হেইন্‌সের হত্যাকারীদের শাস্তি হবেই: ক্যামেরন

জরুরি বৈঠক শেষে বক্তব্য রাখছেন ডেভিড ক্যামেরন
ছবির ক্যাপশান,

জরুরি বৈঠক শেষে বক্তব্য রাখছেন ডেভিড ক্যামেরন

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন অঙ্গীকার করেছেন যে ত্রাণকর্মী ডেভিড হেইন্‌সকে যারা গলা কেটে হত্যা করেছে, তাদের খুঁজে বের করে শাস্তি দেয়া হবে। এতে যত দিন সময় লাগুক।

দু'জন মার্কিন সাংবাদিকের কায়দায়, তাদের হাতে আটক ব্রিটিশ এই ত্রাণকর্মীকেও আইএস জঙ্গীরা হত্যা করে সেই হত্যাকান্ডের লোমহর্ষক ভিডিও চিত্র ইন্টারনেটে প্রকাশ করেছে।

আইএস-এর ঐ ভিডিওতে বলা হয়েছে, ইরাকে কুর্দিদের প্রতি ব্রিটেনের সমর্থনের বদলা নিতেই ডেভিড হেইন্‌সকে হত্যা করা হলো।

মি. হেইনসের হত্যাকান্ডের খবরে রোববার সকালে ব্রিটেনের জাতীয় নিরাপত্তা বিষয়ক এক গুরুত্বপূর্ণ কমিটির জরুরি বৈঠক ডেকেছিলেন প্রধানমন্ত্রী মি. ক্যামেরন।

কিভাবে এই ঘটনার প্রত্যুত্তর দেয়া যায় এবং কিভাবে ইসলামিক স্টেটকে মোকাবেলা করা যায়, তা নিয়েই সেখানে কথাবার্তা হয়।

বৈঠক শেষে ডেভিড ক্যামেরন বলেন, ইসলামিক স্টেট জঙ্গীরা মুসলিম নয়, ওরা হচ্ছে দানব। তিনি বলেন, এই গোষ্ঠীটি বিশ্ব নিরাপত্তার জন্য যে হুমকি তৈরি করেছে তা উপেক্ষা করার কোন সুযোগ নেই।

৪৪-বছর বয়সী ডেভিড হেইন্‌সকে জঙ্গীরা গত বছরের মার্চ মাসে সিরিয়া থেকে আটক করে।

ব্রিটেনে মুসলিমদের সবচেয়ে বড় সংগঠন মুসলিম কাউন্সিল অফ ব্রিটেনও এই হত্যাকান্ডের তীব্র নিন্দা করেছে।

এই সংগঠনের মহাসচিব ড: সুজা শফি বলেছেন, ইরাক এবং সিরিয়ার এই চরমপন্থীরা ইসলামের নামে যা করছে, তার সঙ্গে ইসলামের বিন্দুমাত্র সম্পর্ক নেই এবং ইসলাম এরকম হত্যা মোটেই সমর্থন করে না।