ভারতকে বিশেষ অর্থনৈতিক জোন তৈরির জায়গা দেবে বাংলাদেশ

ছবির কপিরাইট no
Image caption দিল্লীতে যৌথ পরামর্শমূলক কমিটির বৈঠকে বাংলাদেশ ও ভারতের কর্মকর্তারা। চিত্র সৌজন্য: ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়।

ভারতীয় শিল্পপতিদের জন্য বিশেষ অর্থনৈতিক জোন তৈরির জায়গা দিতে রাজি হয়েছে বাংলাদেশ।

এই স্থান তৈরির জন্য বাংলাদেশ ষোলটি জায়গা নির্বাচন করেছে। সেখান ভারতকে একটি জায়গা বেছে নেবার কথা বলা হয়েছে।

বিকেলে দিল্লীতে অনুষ্ঠিত তৃতীয় যৌথ পরামর্শমূলক কমিটি বা জেসিসির বৈঠকে ভারতের শিল্পপতিদের দেয়া বিশেষ অর্থনৈতিক জোন তৈরির প্রস্তাবে সাড়া দেয় বাংলাদেশ।

বৈঠকে যোগ দেবার জন্য ব্যবসায়ী ও কর্মকর্তাদের একটি প্রতিনিধিদল নিয়ে ভারতে গেছেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী।

মূলত: বাংলাদেশ ও ভারতের অমীমাংসিত নানা বিষয় নিয় আলোচনার জন্য মাঝে মাঝেই জেসিসির এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

তবে বাংলাদেশের তরফ থেকে যেসব আলোচিত অমীমাংসিত ইস্যু আছে; যেমন তিস্তার জলবন্টণ, সীমান্ত চুক্তি ইত্যাদি নিয়ে আজকের বৈঠকে নতুন কোনও সমাধান আসেনি বলে জানা যাচ্ছে।

আরও যেসব সিদ্ধান্ত:

ছবির কপিরাইট no
Image caption নালন্দা বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনকল্পে এক সমঝোতা স্মারক সই অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী ও ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। চিত্র সৌজন্য: ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়।

বৈঠকে আরও সিদ্ধান্ত হয়, ঢাকা ও কলকাতার মধ্যে চালু থাকা ট্রেন মৈত্রী এক্সপ্রেসের বহন ক্ষমতা আগামী সোমবার থেকে আরও বাড়ানো হবে।

সেই সাথে প্রতি সপ্তাহে দুবারের বদলে তিনবার ট্রেন ছাড়ার সিদ্ধান্তও নেয়া হয়ে।

এছাড়া ভারতের গৌহাটি-শিলং থেকে ঢাকা রুটে একটি বাস চলাচলের জন্য এ বছরের মধ্যেই পরীক্ষামূলক যাত্রা শুরু করবার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

সমুদ্র পথে বাংলাদেশের সাথে ভারতের মধ্যে যাত্রীবাহী নৌযান চালুর সিদ্ধান্ত হয়েছে এ বৈঠকে।

এছাড়া বৈঠক থেকে বাংলাদেশের পরমাণু ও মহাকাশ প্রযুক্তির জন্য সহায়তা দেবার প্রস্তাব করেছে ভারত।

এই খবর নিয়ে আরো তথ্য