জেএমবি সংগঠনকে চাঙ্গা করার চেষ্টা করা হচ্ছে, বলছে র‍্যাব

ছবির কপিরাইট AP
Image caption বিশেষ বাহিনী র‍্যাবের হাতে আরো জেএমবি সদস্য আটক।

বাংলাদেশে পুলিশের বিশেষ বাহিনী র‍্যাব-এর একজন মুখপাত্র বলেছেন, জামাতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ-এর যে পাঁচজন সদস্যকে শুক্রবার আটক করা হয়েছে, তারা সংগঠনকে পুনর্জীবিত করার কাজে নিয়োজিত ছিল।

র‍্যাব মুখপাত্র মুফতি মাহমুদ হাসান বিবিসিকে বলেন, গোয়েন্দা সূত্রের মাধ্যমে তারা জানতে পারেন জেএমবির সমন্বয়ক আব্দুন নূর কয়েকজন সহযোগীকে সাথে নিয়ে চাপাই নবাবগঞ্জ থেকে জয়দেবপুর যাচ্ছিলেন।

সেই তথ্যের ভিত্তিতেই র‍্যাব-১২ সিরাজগঞ্জ রেল স্টেশন থেকে তাদের আটক করে, তিনি বলেন।

তাদের উদ্দেশ্য ছিল নতুন কর্মী সংগ্রহসহ তাদের সংগঠনকে পুনর্জীবিত করা, এবং নাশকতা সৃষ্টি করে তাদের অস্তিত্ব সবার সামনে তুলে ধরা, মি: হাসান বলেন।

তাদের নাশকতামূলক কাজের পরিকল্পনার আরেকটি উদ্দেশ্য হচ্ছে তাদের নেতা-কর্মীদের মনোবল চাঙ্গা করা, তিন বলেন।

আটককৃতদের কাছ থেকে প্রচুর বিস্ফোরক, বিস্ফোরক তৈরির উপাদান এবং জিহাদি বই পাওয়া গেছে বলেও জানান তিনি।

তবে এই জেএমবি দলের সাথে সম্প্রতি ভারতের পশ্চিমবঙ্গে আটক জেএমবি গ্রুপের সংশ্লিষ্টতা আছে বলে যে কথা ধারনা করা হয়েছে, সেটা মি: হাসান নাকচ করে দেন।

জিজ্ঞাসাবাদ করে আপাতত যতটুকু তথ্য আমরা পেয়েছি, তাতে সেরকম কোন সংশ্লিষ্টতা আমরা পাই নি, মি: হাসান বলেন।

সম্প্রতি ভারতে জেএমবি সদস্য সন্দেহে কয়েকজন বাংলাদেশীকে আটক করা হয়।

ভারতের গোয়েন্দা কর্মকর্তারা বলেছেন, জেএমবি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে হত্যাসহ ব্যাপক সহিংসতার পরিকল্পনা করছে।