চলে গেলেন ওরা ১১ জনের চাষী নজরুল ইসলাম

জাতীয় চলচ্চিত্র এবং একুশে পদক সম্মাননা পাওয়া এই চলচ্চিত্রকার শেষসময় পর্যন্ত ব্যস্ত ছিলেন চলচ্চিত্র নিয়ে
Image caption জাতীয় চলচ্চিত্র এবং একুশে পদক সম্মাননা পাওয়া এই চলচ্চিত্রকার শেষসময় পর্যন্ত ব্যস্ত ছিলেন চলচ্চিত্র নিয়ে

বাংলাদেশের একজন নামকরা চলচ্চিত্র পরিচালক চাষী নজরুল ইসলাম মারা গেছেন। ভোরে রাজধানীর বেসরকারি একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

তার পারিবারিকসূত্রে জানা যায়, গতকাল শনিবার থেকে তিনি লাইফ সাপোর্টে ছিলেন। এরপর আজ রোববার ভোর পাঁচটা ৫৫ মিনিটের দিকে শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন এই চলচ্চিত্র নির্মাতা।

তার স্ত্রী মিসেস ইসলাম বিবিসি বাংলাকে জানান, তিনি দীর্ঘদিন ব্রেন ক্যান্সারে ভূগছিলেন। এছাড়া তার লিভার এবং ফুষফুসেও কিছু সমস্যা দেখা দিয়েছিল।

জাতীয় চলচ্চিত্র এবং একুশে পদক সম্মাননা পাওয়া এই চলচ্চিত্রকারের বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। তবে শেষ পর্যন্ত তিনি ব্যস্ত ছিলেন চলচ্চিত্র নির্মাণ নিয়ে।

তিনি চলে গেলেন বটে, কিন্তু এখনও মুক্তির প্রতীক্ষায় রয়েছে তার নির্মিত দুটো সিনেমা। একটি ‘অন্তরঙ্গ’ অন্যটি ‘ভুল যদি হয়’।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, চাষী নজরুল ইসলাম বেশ কিছুদিন ধরেই বেসরকারি ল্যাব এইড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন ।

তবে গত বুধবার শারীরিক অবস্থা বেশি খারাপ হলে তাঁকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র আইসিইউতে নেওয়া হয়। এরপর শনিবার সকালের দিকে রক্তচাপ মারাত্মকভাবে কমে গেলে এবং তাঁর শ্বাস-প্রশ্বাসে কষ্ট হলে, কৃত্রিমভাবেই তাঁর রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ ও শ্বাস-প্রশ্বাসের ব্যবস্থা করা হয়। “চাষী নজরুল ইসলাম ছিলেন বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের জীবন্ত এক ইতিহাস” তাৎক্ষণিক এক প্রতিক্রীয়ায় বিবিসিকে বলছিলেন আরেকজন চলচ্চিত্র নির্মাতা সোহানুর রহমান সোহান।

তিনি মনে করেন, চাষী নজরুলের প্রয়াণে চলচ্চিত্র শিল্পের বিরাট ক্ষতি হয়ে গেল ।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, সোমবার ঢাকায় জানাযা শেষে তার মরদেহ দাফনের জন্য নিয়ে যাওয়া হবে গ্রামের বাড়িতে।

চলচ্চিত্রের সাথে চাষী নজরুল ইসলামের সম্পৃক্ততা ১৯৫৫ সাল থেকে।

তার নির্মিত ব্যাপক প্রশংসিত একটি চলচ্চিত্র ‘ওরা ১১ জন’কে মনে করা হয়, স্বাধীন বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক প্রথম চলচ্চিত্র।

তার নামকরা অনেকগুলো চলচ্চিত্রের মধ্যে রয়েছে সংগ্রাম, হাঙর নদী গ্রেনেড, মেঘের পরে মেঘ, দেবদাস, শুভদা, হাছন রাজা, শাস্তি ইত্যাদি।

তিনি পরিচালনার পাশাপাশি কিছু ছবিতে অভিনয়ও করেছেন।