আজ বাংলাদেশ সফরে আসছেন মমতা ব্যানার্জী

ছবির কপিরাইট Reuters
Image caption রাজনৈতিক বিশ্লেষকেরা বলছেন, মমতা ব্যানার্জীর রাজনৈতিক কর্তৃত্ব যে দুর্বল হয়েছে, এটা অনস্বীকার্য।

গত কয়েক মাস ধরেই দলের ভেতরে ও বাইরে চাপের মধ্যে রয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী এবং তাঁর দল তৃণমূল কংগ্রেস।

একদিকে সারদা গোষ্ঠীর আর্থিক কেলেঙ্কারিতে দলের শীর্ষ নেতাদের গ্রেপ্তার বা জেরা, অন্যদিকে মৌলবাদী জঙ্গিদের সঙ্গে দলের নেতাদের জড়িত থাকার অভিযোগ।

এই পরিস্থিতির মধ্যেই আজ থেকে শুরু হচ্ছে মমতা ব্যানার্জীর বাংলাদেশ সফর।

এই সফর দুই দেশের সম্পর্কে কতটা প্রভাব ফেলবে?

রাজনৈতিক বিশ্লেষক জয়ন্ত ঘোষাল বলছিলেন, মমতা ব্যানার্জীর রাজনৈতিক কর্তৃত্ব যে দুর্বল হয়েছে, এটা অনস্বীকার্য।

কিন্তু একারণেই তার কট্টর অবস্থানও পরিবর্তন হয়েছে।

ভারতীয় জনতা পার্টি মমতা ব্যানার্জীর ঢাকা সফরকে কি চোখে দেখছে?

বিজেপির বর্ষীয়ান নেতা তথাগত রায় বলেন, বিদেশের সাথে সম্পর্ক রাখার ব্যাপারে একটা রাজ্য সরকারের কোনও ভূমিকা থাকতে পারেনা।

তাই মমতা ব্যানার্জীর এবিষয়ে কোনও সরকারি বক্তব্য থাকতে পারেনা।

শুধুমাত্র একটি সৌজন্যমুলক সফরে যেতে পারেন তিনি।

বিদেশ নীতির ক্ষেত্রে সাংবিধানিকভাবে ভারতের অঙ্গরাজ্যগুলোর কোনও ভূমিকা না থাকলেও যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর কারণেই অন্য দেশের সঙ্গে সম্পর্কের ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট রাজ্যের মতামত গুরুত্ব পেয়ে থাকে।

তবে নিজের নড়বড়ে অবস্থান কিছুটা শক্ত করবার পর মমতা ব্যানার্জীর পরিবর্তিত মনোভাব বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্কে কি অন্যমাত্রা যোগ করবে?

এই প্রশ্নে অবশ্য দ্বিধাবিভক্ত রাজনৈতিক নেতা ও বিশ্লেষকেরা।

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর