মানিকগঞ্জে লঞ্চডুবিতে ৪১ জনের মৃত্যু,আরো মৃত্যুর আশংকা

Image caption চলছে উদ্ধার তৎপরতা। ফটো- ফোকাস বাংলা

বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার অদূরে মানিকগঞ্জের পদ্মা নদীতে পাটুরিয়া - দৌলতদিয়া নৌ-রুটে একটি যাত্রীবাহী লঞ্চ ডুবির ঘটনা ঘটেছে।

নার্গিস নামের একটি কার্গোর ধাক্কায় ওই লঞ্চটি ডুবে যায়।

এ ঘটনায় শিশু ও নারীসহ অন্তত ৪১ জনের মৃত্যদেহ উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলার পুলিশ সুপার বিধান ত্রিপুরা।

এর আগে সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসক রাশিদা ফেরদৌস ৩৫ জনের মৃতদেহ উদ্ধারের কথা জানিয়েছিলেন।

Image caption উদ্ধার তৎপরতার দৃশ্য। ফটো- ফোকাস বাংলা।

জেলার শিবালয় উপজেলা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ জানিয়েছেন, রোববার সকাল সোয়া ১১টার দিকে পদ্মা নদীতে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

তিনি জানান বাঘা থেকে পাটুরিয়া থেকে দৌলতদিয়াগামী ‘এমভি মোস্তফা’ নামের ওই লঞ্চটিকে পাশ থেকে একটি কার্গো ধাক্কা দিলে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

লঞ্চটিতে ৮০ থেকে ৯০ জন যাত্রী ছিল। তবে এর মধ্যে দুর্ঘটনার পরপরই ৩০-৪০ জন যাত্রী সাতরিয়ে তীরে উঠতে সক্ষম হয় বলে তিনি জানাচ্ছেন।

তবে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এখনও অনেকে নিখোঁজ রয়েছেন।

Image caption অন্তত ৩৫ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। কর্তৃপক্ষ বলছে এ সংখ্যা আরো বাড়তে পারে। ফটো- ফোকাস বাংলা

শিবালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রকিবুজ্জামান জানিয়েছেন মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন সংস্থা (বিআইডব্লিউটিএ) ও ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে উদ্ধার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।

পুলিশ ও প্রশাসনের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে রয়েছেন।

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর