যুদ্ধোত্তর জার্মানির সেরা লেখক গুন্টার গ্রাস প্রয়াত

গুন্টার গ্রাস, তার চিরপরিচিত পাইপ হাতে।

ছবির উৎস, Reuters

ছবির ক্যাপশান,

গুন্টার গ্রাস, তার চিরপরিচিত পাইপ হাতে।

জার্মানির বিশিষ্ট ঔপন্যাসিক গুন্টার গ্রাস মারা গেছেন। তার বয়স হয়েছিল ৮৭ বছর।

সাহিত্যে বিশেষ অবদানের জন্য ১৯৯৯ সালে তাকে নোবেল পুরস্কার দেয়া হয়।

যুদ্ধ-পরবর্তী জার্মানিতে নীত-আদর্শের প্রশ্নে তার অবস্থানকে অনুসরনযোগ্য বলে ব্যাপকভাবে গ্রহণ করা হতো।

অন্যান্য সৃষ্টির মতোই তার অমর উপন্যাস ডি ব্লেশট্রোমেল (টিনের ঢোল) লেখা হয়েছিল পোল্যান্ডে তার ছেলেবেলার শহর ড্যানসিগকে ঘিরে।

এই উপন্যাসটি পরে যে ছায়াছবিতে রূপান্তর করা হয় সেটি অস্কার এবং পাম ড'অর পুরস্কার জিতেছিল।

তবে সর্বস্প্রতি তাকে নিয়ে বেশ বিতর্ক দেখা যায় যখন তিনি এই কথা বলে সবাইকে চমকে দিয়েছিলেন যে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় তিনি নাৎসী বাফেন এসএস বাহিনীর সদস্য ছিলেন।