ওমরাহ্‌ ফ্লাইট বন্ধ ঘোষণা করলো ইরান

প্রতি বছর পাঁচ লক্ষ ইরানি ওমারহ্‌ পালন করেন। ছবির কপিরাইট Reuters
Image caption প্রতি বছর পাঁচ লক্ষ ইরানি ওমারহ্‌ পালন করেন।

সৌদি আরবে দুটি ইরানি কিশোরের ওপর যৌন নির্যাতনের অভিযোগ করে ইরান সে দেশ থেকে সকল ওমরাহ্‌ ফ্লাইট বন্ধ ঘোষণা করেছে।

ইরানের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আলী জান্নাতি বলেছেন, দোষী ব্যক্তিদের শাস্তি দেয়া না হলে কোন ইরানিকে সৌদি আরবে ওমরাহ্‌ হজ পালন করতে যেতে দেয়া হবে না।

ঐ দুই কিশোরের অভিযোগ: গত মার্চ মাসে ওমরাহ্‌ শেষে দেশে ফেরার পথে জেদ্দা বিমান বন্দরে ক'জন সৌদি নিরাপত্তা কর্মকর্তা তাদের ওপর যৌন নির্যাতন চালায়।

এই অভিযোগের পর সৌদি আরব এবং ইরানের মধ্যে অবনতিশীল সম্পর্ক আরো বাড়বে বলেই আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ইয়েমেনে গৃহযুদ্ধের প্রশ্নে সৌদি সরকার এবং তেহ্‌রানের কর্তৃপক্ষ এখন মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে।

ইরান ইয়েমেনের শিয়া হুতি বিদ্রোহীদের সমর্থন দেয়। অন্যদিকে সুন্নি দেশ সৌদি আরব হুতিদের ওপর বিমান হামলা পরিচালনা করছে।

এই যৌন নির্যাতনের প্রতিবাদে গত শনিবার তেহ্‌রানে সৌদি আরব দূতাবাসের বাইরে শত শত মানুষ বিক্ষোভ দেখান।

তারা 'অপ্রয়োজনীয়' বর্ণনা করে ওমরাহ্‌ হজযাত্রা বন্ধ করতে ইরানি সরকারের প্রতি দাবি জানায়।

এর জবাবে ইরানের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আলী জান্নাতি সোমবার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে বলেন, ''সৌদি কর্তৃপক্ষ অপরাধীদের বিচার এবং সাজা দেয়া না পর্যন্ত ওমরাহ্ হজের সব ফ্লাইট আমি বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছি।'

''যে ঘটনা ঘটেছে তার মধ্য দিয়ে ইরানিদের সম্মান ক্ষুন্ন হয়েছে,'' তিনি বলেন।

হজ মৌসুম ছাড়াও প্রতি বছর ওমারহ্‌ পালনের জন্য প্রায় ৫,০০,০০০ ইরানি সৌদি আরব গমন করেন।