আফগানিস্তানের জালালাবাদে হামলায় বহু হতাহত

ছবির কপিরাইট Reuters

আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলীয় শহর জালালাবাদে এক আত্মঘাতী হামলায় অন্তত ৩৩ জন নিহত এবং আরও একশোর বেশি মানুষ আহত হয়েছেন।

খবরে বলা হচ্ছে, একটি ব্যাংকের বাইরে আত্মঘাতী হামলাকারী এই বিস্ফোরণ ঘটায়।

ইসলামিক স্টেট এই হামলার দায়িত্ব স্বীকার করেছে, তবে তাদের এই দাবির সত্যতা যাচাই করা যায়নি।

অন্যদিকে আফগান তালেবান এই হামলার নিন্দা করেছে।

আফগান কর্মকর্তারা বলেছেন, আত্মঘাতী ওই হামলাকারী একটি মোটর সাইকেলে করে ব্যাংকের সামনে এই বিস্ফোরণ ঘটায়।

ছবির কপিরাইট AP

ব্যাঙ্কের গ্রাহকরা যেখানে লাইন দিয়ে টাকা তুলছিলো সেখানেই হামলাটি চালানো হয়।

সাধারণত সরকারি কর্মকর্তা ও সেনাবাহিনীর লোকেরাই তাদের বেতন তোলার জন্যে এই ব্যাঙ্কটি ব্যবহার করতেন।

একজন প্রত্যক্ষদর্শী জাওয়িদ খান জানিয়েছেন হামলার পর বহু মানুষকে তিনি আহত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেছেন।

তিনি বলেছেন, “বেতন তোলার জন্যে লোকজন কাবুল ব্যাঙ্কের বাইরে অপেক্ষা করছিলো। তখনই হঠাৎ এই বিস্ফোরণ ঘটে। বহু মানুষকে, বহু মৃতদেহ রাস্তায় পড়েছিলো। অ্যাম্বুলেন্স আসতে দেরি হওয়ায় তাদের অনেকেরই সেখানে মৃত্যু হয়েছে।”

পুলিশ বলছে, ব্যাঙ্কটির কাছেই আরো একটি বোমা উদ্ধার করে সেটিকে নিষ্ক্রিয় করা হয়েছে।

ছবির কপিরাইট EPA

কাবুল থেকে বিবিসির সংবাদদাতা বলছেন, গত কয়েক মাসের মধ্যে জালালাবাদে এটিই সবচে বড়ো হামলা।

আফগানিস্তানে ইসলামিক স্টেইটের মুখপাত্র বলে দাবিদার শহীদুল্লাহ শহীদ এই হামলার দায়িত্ব স্বীকার করেছেন। হামলাকারীর নামও উল্লেখ করেছেন তিনি।

তবে বিবিসি তার এসব দাবি নিশ্চিত করতে পারেনি।

মি. শহিদ পাকিস্তানি তালেবানের মুখপাত্র ছিলেন কিন্তু ইসলামিক স্টেইটের সাথে ঘনিষ্ঠতার অভিযোগে গতবছর তাকে বহিষ্কার করা হয়।

আফগান প্রেসিডেন্ট আশারফ ঘানি এই হামলাকে কাপুরুষের সন্ত্রাসী কাজ বলে মন্তব্য করে এর তীব্র নিন্দা করেছেন।

আফগান তালেবানও এই হামলা নিন্দা করেছে।