পুষ্টি চাহিদা মেটাতে পুকুরে মলা মাছের চাষ

ভিটামিন এ-এর চাহিদা মেটাতে মলা মাছে জুড়ি নেই।
Image caption ভিটামিন এ-এর চাহিদা মেটাতে মলা মাছে জুড়ি নেই।

মলা-ঢ্যালার মতো ছোট মাছ খেলে চোখের জ্যোতি বাড়ে – ছেলেবেলায় বাবা মায়ের কাছ থেকে শোনা এই উপদেশ এখন বৈজ্ঞানিকভাবে সত্য হতে যাচ্ছে।

মলা মাছের পুষ্টি গুণের ওপর সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা গিয়েছে, দৈনিক খাদ্য তালিকায় মলা মাছ থাকলে তার স্বাস্থ্যগত সুফল অনেক বেশি।

বিশেষভাবে ভিটামিন এ-এর অভাব পূরণে এটি খুবই কার্যকর বলে খবর দিচ্ছে দক্ষিণ এশীয় সাইডেভনেট নামের উন্নয়ন সংক্রান্ত একটি ওয়েবসাইট।

এটি বলছে, মলা মাছের পুষ্টিগুণের ওপর একটি গবেষণা নিবন্ধ আগামী মাসে অ্যাকুয়াকালচার সাময়িকীতে প্রকাশিত হবে।

এই নিবন্ধে বর্ণনা করা হবে বসতবাড়ির কাছে ছোট পুকুরে মলা-মাছ চাষ করে কিভাবে পরিবারের পুষ্টি চাহিদা পূরণ করা যায়।

বাংলাদেশে মলাসহ যেসব ছোট মাছ পাওয়া যায় তাতে আয়রন, জিঙ্ক, ক্যালসিয়াম, ভিটামিন এ এবং ভিটামিন বি-১২সহ নানা মাইক্রোনিউট্রিয়েন্ট পাওয়া যায়।

পাশাপাশি এসব মাছে থাকে ফ্যাটি অ্যাসিড এবং অ্যানিম্যাল প্রোটিন।

ওয়ার্ল্ড ফিশ সেন্টারের এই গবেষণার প্রধান লেখক শকুন্তলা হারাক্‌সিং থিলস্টেড বলছেন, ``আমরা গবেষণায় যেটা দেখাতে চাইছি তাহলে স্বল্প ব্যয়ে মলা মাছ চাষ করে ভিটামিন এ-এর চাহিদা মেটানো সম্ভব।``

ভিটামিন এ-এর সঙ্কটে শিশুদের মধ্যে অন্ধত্ব ও সব বয়সের মানুষের মধ্যে নানা ধরনের অসুখ-বিসুখ হতে পারে।

এ ক্ষেত্রে মলা মাছের চাষ পুষ্টি চাহিদা মেটানোর ক্ষেত্রে একটা কার্যকর পথ হতে পারে বলে তিনি মনে করেন।

ভিটামিন এ-এর চাহিদা মেটানোর জন্য বাংলাদেশ দু`দশকেরও বেশি সময় ধরে কর্মসূচি চাল রেখেছে।

তার পরও দেশটিতে চরম ভিটামিন-এ সঙ্কট রয়েছে।