কোলকাতায় ফ্লাইওভার ধ্স: নিহত ২৩

kolkata_bridge
Image caption ধ্বংসস্তূপের নিচে কত মানুষ চাপা পড়ে আছে সেটি নিরূপণ করা যায়নি

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কোলকাতায় নির্মাণাধীন ফ্লাইওভার ধসে পড়ে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৩ জনে।

উদ্ধার বহু মৃতদেহ এমনভাবে থেঁতলে গেছে বা পুড়ে গেছে, এমনকি পরিবারের সদস্যরাও স্বজনদের মৃতদেহ চিনতে পারছেন না।

পশ্চিমবঙ্গের সাংবাদিক কল্পনা প্রধান জানাচ্ছেন, সরকারি কর্মকর্তারা এখনো পর্যন্ত মোট বারোজনকে শনাক্ত করতে সমর্থ হয়েছেন।

রাতভর চলা উদ্ধারকাজে ১৪ থেকে ১৫টি ক্রেন নামিয়ে উদ্ধারকাজ চালানো হচ্ছে।

সকালেও একটি মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে।

Image caption রাতভর চলেছে উদ্ধারকাজ, ১৪ থেকে ১৫টি ক্রেন নামানো হয়েছে

মিস প্রধান জানাচ্ছেন, ঘটনাস্থলে বড় যে লোহার পাতটি পড়ে আছে তার নিচে একটি লরি চাপা পড়ে রয়েছে, তার ভেতরে ঠিক কতজন আটকে আছেন বা মারা গেছেন সেটি এখনো বলা যাচ্ছে না।

উদ্ধার হওয়া আহত ব্যক্তিদের পার্শ্ববর্তী মাড়োয়ারি রিলিফ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

এ ঘটনার জন্য রাজনৈতিক দল তৃণমূল কংগ্রেস এবং সিপিআইএম পরস্পরের ওপর দোষারোপ করছে।

তবে, ফ্লাইওভার ভেঙে পড়ার কারণ সম্পর্কে তাৎক্ষনিক কোনো কারণ জানাতে পারেনি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান।

ছবির কপিরাইট Reuters
Image caption ফ্লাইওভার ভেঙে পড়ার কারণ সম্পর্কে তাৎক্ষনিক কোনো কারণ জানাতে পারেনি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান

ঐ কোম্পানির মুখপাত্র কেপি রাও বলেছেন, প্রায় ৭০ ভাগ কাজ সম্পন্ন হয়ে যাবার পর এমন ঘটনা কি করে ঘটলো সেই বিষয়টিতে তারা আশ্চর্য হয়েছেন।

এদিকে, ভারতের ন্যাশনাল ডিজাস্টার রেসপন্স ফোর্স এর প্রধান ওপি সিং জানিয়েছেন, ভারী কংক্রিট কাটার জন্য যন্ত্র ব্যাবহার করা হচ্ছে।

কোলকাতার সবচেয়ে জনবহুল এলাকাগুলোর একটি, গিরিশ পার্ক এলাকায় বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে বারোটা নাগাদ ভেঙে পড়ে ‌ ফ্লাইওভার।

প্রায় দুই কিলোমিটার লম্বা ফ্লাইওভারটি ২০০৯ সাল থেকে নির্মাণ করা হচ্ছিলো।

কাজ শেষ করার সময়সীমা কয়েক দফা পার করেও শেষ হয়নি নির্মাণ কাজ।