জেলখানায় শফিক রেহমানের স্বাস্থ্য নিয়ে পরিবারের উদ্বেগ

ছবির কপিরাইট Focus Bangla
Image caption সাংবাদিক শফিক রেহমান

বাংলাদেশে জেলখানায় আটক সিনিয়র সাংবাদিক শফিক রেহমানের স্বাস্থ্য নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে তার পরিবার।

পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে, ৮১ বছর বয়সী মি. রেহমানকে ঠিকমতো চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে না।

ব্রিটিশ সংবাদপত্র দ্যা ইন্ডিপেনডেন্টকে শফিক রেহমানের ছেলে সুমিত রেহমান বলেছেন, তীব্র বুকের ব্যথা আর ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার পর তার পিতাকে তড়িঘড়ি করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিলো।

“আমার পিতাকে কড়া নিরাপত্তার মধ্যে কারাগারের নির্জন সেলে আটকে রাখা হয়েছে। তদন্ত স্থগিত রাখা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগও আনা হয়নি,” বলেন তিনি।

সুমিত রেহমান বলেন, “তাকে মেঝেতে শুতে দেওয়া হয়েছে। তার কক্ষে কোনো পাখাও ছিলো না। দিনের ২৩ ঘণ্টাই তাকে তালাবন্ধ করে রাখা হয়েছে। তিনি ডায়াবেটিস রোগের আক্রান্ত। তার হৃদযন্ত্রে একটি স্টেন্টও বসানো। প্রতিদিনই তাকে ওষুধ খেতে হয়। কিন্তু তাকে কেউ সেসব দিচ্ছে না।”

সাংবাদিক শফিক রেহমান একজন প্রখ্যাত সাংবাদিক এবং বিরোধী দল বিএনপির প্রধান খালেদা জিয়ার ঘনিষ্ঠ সহযোগী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে সজীব ওয়াজেদকে অপহরণ ও হত্যার ষড়যন্ত্রের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে মি. রেহমানকে ১৬ই এপ্রিল তার বাড়ি থেকে নাটকীয় কায়দায় আটক করা হয়।

মি. রেহমান তার বিরুদ্ধে আনা এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

তার পরিবার বলছে, “এগুলো পুরোপুরি হাস্যকর।”

ব্রিটিশ পত্রিকাটি লিখছে, মি. রেহমানের স্বাস্থ্য এখন কিছুটা স্থিতিশীল। তাকে হাসপাতাল থেকে আবার জেলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

কিন্তু তারপরেও তার পরিবারের পক্ষ থেকে তার স্বাস্থ্যের ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে।

সুমিত রেহমান তার পিতাকে আটকের ঘটনায় ব্রিটিশ সরকারকে হস্তক্ষেপের অনুরোধ জানিয়েছেন।

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর