এরদোয়ানকে 'অপমান' করায় মিস তুর্কির কারাদণ্ড

merve ছবির কপিরাইট AP
Image caption ২০০৬ সালে তুরস্কে সুন্দরী প্রতিযোগিতা জিতেছিলেন মার্ভ বুয়ুকছারাচ

২০০৬ সালের সুন্দরী প্রতিযোগিতায় শিরোপা জয়ী মার্ভ বুয়ুকছারাচ ২০১৪ সালে তার ইনস্টাগ্রাম পাতায় প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানকে ব্যাঙ্গ করে লেখা একটি ছড়া শেয়ার করেছিলেন।

এরপর গত বছর প্রেসিডেন্টকে অপমান করার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মামলা হয়। অল্প সময়ের জন্য ২৭ বছরের এই তুর্কি সুন্দরীতে আটকও করা হয়েছিল।

বিচার শেষে আজ (মঙ্গলবার) ইস্তাম্বুলের একটি আদালত তাকে দোষী সাব্যস্ত করে এবং ১৪ মাসের কারাদণ্ড দেয়।

তবে এখনই তাকে জেল খাটতে হবে না। আগামী পাঁচ বছরে তিনি যদি আবার এ ধরণের কোনো 'অপরাধ' করেন, তখন তাকে কারাগারে যেতে হবে। অর্থাৎ আগামী পাঁচ বছর কারাগারে যাওয়ার হুমকিতে থাকতে হবে মি বুয়ুকছারাচকে।

তবে তার আইনজীবী বলছেন, এই রায়ের বিরুদ্ধে তিনি আপীল করবেন। প্রয়োজনে এই মামলা নিয়ে তিনি ইউরোপীয় আদালতে যাবেন।

ছবির কপিরাইট EPA
Image caption তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেচেপ তাইপ এরদোয়ান

সাবেক এই মিস তুর্কি যখন রম্য ছড়াটি ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করেন, মি এরদোয়ান তখন প্রধানমন্ত্রী ছিলেন।

প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর থেকে মি এরদোয়ান কোনো সমালোচনাই সহ্য করছেন না।

২০১৪ সালে প্রেসিডেন্ট হিসাবে ক্ষমতা নেওয়ার পর থেকে তাকে অপমান করার অভিযোগে প্রায় ২০০০ লোকের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। তাদের মধ্যে সেলিব্রিটি, সাংবাদিক থেকে শুরু করে স্কুলের ছাত্ররাও রয়েছে।

মানবাধিকার কর্মীরা বলছেন, সামান্য সমালোচনাও সহ্য করতে রাজী নন প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান।

সম্প্রতি তাকে বিদ্রূপ করার অভিযোগে জার্মানির এক ব্যাঙ্গ লেখকের বিরুদ্ধেও মি এরদোয়ান মামলা দায়ের করেন - যা নিয়ে জার্মানিতে সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর