মোহাম্মদ আলীকে শেষ বিদায়: লুইভিলের রাস্তায় হাজারো মানুষ

ছবির কপিরাইট Getty
Image caption বক্সিং কিংবদন্তীকে শেষ বিদায়ের আয়োজন

বক্সিং কিংবদন্তী মোহাম্মদ আলীকে শেষ বিদায় জানাতে তার কফিনবাহী গাড়িবহর প্রদক্ষিণ করছে কেনটাকির লুইভিল শহর।

এই শহরেই জন্মগ্রহণ করেন তিনি, বেড়ে উঠেছেন এখানেই।

সকাল থেকেই লুইভিলের রাস্তার দুধারে ছিল ভক্তদের ভিড়।

মোহাম্মদ আলীর কফিন বহনকারী গাড়ি বহর যখন রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিল, তখন দুপাশ থেকে ভক্তরা আলী, আলী বলে ধ্বনি দিচ্ছিলেন।

তাঁর শৈশব-কৈশোরের স্মৃতিবিজড়িত সব স্থানের পাশ দিয়ে শেষ বারের মতো নিয়ে যাওয়া হয় তাঁর লাশ।

ছবির কপিরাইট Getty
Image caption জানাজার জন্য আনা হচ্ছে লাশ

শহরের একপাশে বিরাট এক ময়দানে হবে সর্বধর্মীয় প্রার্থনা। সেখানে তার প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানিয়ে বক্তৃতা করবেন সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন।

প্রেসিডেন্ট ওবামা যেহেতু এই অনুষ্ঠানে হাজির থাকতে পারছেন না, তাই ফেসবুকে দেয়া এক ভিডিওতে তিনি মোহাম্মদ আলীর প্রতি তার শেষ শ্রদ্ধা জানিয়েছেন।

প্রেসিডেন্ট ওবামা বলেন, “মোহাম্মদ আলীকে দেখে আমি বেড়ে উঠেছি। তিনি যা অর্জন করেছেন, তার ভিত্তিতে আমার পরিচয় গড়ে উঠেছে। এবং আমার জীবনের সবচেয়ে বড় আশীর্বাদ হচ্ছে, যখন আমি নির্বাচনে দাঁড়ালাম, প্রথমে সেনেটর এবং পরে প্রেসিডেন্ট হলাম, তখন আমার তাকে প্রত্যক্ষভাবে জানার সুযোগ হয়েছিল।”।

প্রায় ১৪ হাজার টিকেট ছাড়া হয় লুইভিলের স্টেডিয়ামে শেষ বিদায় জানানোর অনুষ্ঠানের জন্য, মাত্র আধঘন্টার মধ্যেই সেসব টিকেট শেষ হয়ে যায়।

Image caption বিশ্বের সকল প্রান্তে তিনি ছিলেন সমান জনপ্রিয়

কোরান পাঠ দিয়ে শুরু হবে এই অনুষ্ঠান। এতে প্রয়াত মোহাম্মদ আলীর পরিবারের সদস্যরা ছাড়াও থাকবেন অনেক রাষ্ট্রপ্রধান এবং সারাবিশ্ব থেকে আসা তার ভক্তরা।

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর