মানুষ মারার দায়ে ১৮ সিংহ কাঠগড়ায়

lion ছবির কপিরাইট PRASHANT DAYAL
Image caption মানুষখেকো খুঁজতে ১৮টি সিংহ আটক

ভারতের গুজরাটের গির জঙ্গলে একটি মানুষখেকো খুঁজতে ১৮টি সিংহকে আটক করেছে কর্তৃপক্ষ।

সম্প্রতি সিংহের হামলায় তিনজনের মৃত্যুর পর জঙ্গলের সিংহদের গণহারে আটক করা হচ্ছে।

বন কর্মকর্তারা বলছেন পায়ের ছাপ এবং মল-মূত্র পরীক্ষা করে "অপরাধী" সিংহটিকে সনাক্ত করার চেষ্টা করছেন তারা।

সনাক্ত করার পর সিংটিকে আজীবনের জন্য চিড়িয়াখানায় পাঠিয়ে দেওয়া হবে। অন্যদের ফের জঙ্গলে ছেড়ে দেওয়া হবে।

গুজরাটের গির অভয়ারণ্য এশিয় সিংহের একমাত্র আবাসস্থল।

ছবির কপিরাইট PRASHANT DAYAL
Image caption পায়ের ছাপ, মল-মূত্র, আচরণ পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। অপরাধী হলে আমৃত্যু খাঁচায়।

সম্প্রতি জঙ্গলের সীমানার বাইরে ছয়টি পৃথক সিংহের হামলা হয়েছে এবং ঐ সব হামলায় তিনজন মারা গেছে।

গুজরাটের শীর্ষ বন কর্মকর্তা জে এ খান বলেছেন সিংহগুলোকে গত দুই মাস ধরে আটক করে ভিন্ন ভিন্ন খাঁচায় রেখে পরীক্ষা করা হচ্ছে।

"আমাদের মনে হচ্ছে অপরাধী সিংটিকে আমরা সনাক্ত করতে পেরেছি..তবে আরো কিছু পরীক্ষার জন্য অপেক্ষা করছি।"

বন্য-পশু বিশেষজ্ঞ রুচি দেব বিবিসিকে বলেছেন, পায়ের ছাপ এবং মল-মূত্র দিয়ে সিংহের আচরণ সনাক্ত করা যায়।

"সেই সাথে খাঁচায় সিংহগুলোর আচরণও পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে, মানুষখেকো হয়ে গেলে সিংহেরা মানুষ দেখলে হিংস্র হয়ে ওঠে।"

বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, গিরের জঙ্গলে সিংহের সংখ্যা বাড়তে থাকায় সিংহদের মধ্যে অস্বাভাবিক আচরণ দেখা দিচ্ছে।

গুজরাটের সাবেক প্রধান বন কর্মকর্তা গোবিন্দ প্যাটেল বিবিসিকে বলেছেন, গিরের অভয়ারণ্যে এখন ২৭০টির মত সিংহ রয়েছে। সংখ্যা বাড়ার ফলে কিছু সিংহের দল মূল জঙ্গলের বাইরে গিয়ে থাকার চেষ্টা করছে।

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর