বাঙালী সংস্কৃতিতে ডেসার্ট বলে কি কিছু আছে?

bbc ছবির কপিরাইট b
Image caption খাওয়ার পর মিষ্টি খাওয়ার চল আছে বাংলাদেশে

বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত 'গ্রেট ব্রিটিশ বেক অফ' প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন নাদিয়া হুসেইন ব্রিটেনে বেশ পরিচিত নাম।

কিন্তু বাংলাদেশের মানুষের খাদ্যাভ্যাস নিয়ে মন্তব্য করে তিনি এখন এক বিতর্কের মাঝে ।

কয়েকদিন আগে ব্রিটেনের প্রভাবশালী দৈনিক দ্য গার্ডিয়ানকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে নাদিয়া বলেন বাংলাদেশে চেয়ারে বসে খাওয়ার কোন সংস্কৃতি ছিলনা।

নাদিয়া আরো মন্তব্য করেন বাংলাদেশী খাবারের পরে কখনো ডেসার্টের সংস্কৃতি ছিলনা। নাদিয়া হুসেইনের এ মন্তব্যে অনেকের মাঝে ক্ষোভ তৈরি করেছে।

সোশ্যাল মিডিয়াতেও এ নিয়ে চলছে নানা তর্ক-বিতর্ক।

Image caption 'গ্রেট ব্রিটিশ বেক অফ' প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হন নাদিয়া হুসেইন

কিন্তু প্রশ্ন উঠছে বাঙালী খাদ্যাভ্যাসের সংস্কৃতিতে ডেসার্ট বলে কি আসলেই কিছু আছে?

বাংলাদেশের একজন সেলেব্রিটি শেফ নাহিদ ওসমান বলছেন বাঙ্গালী সংস্কৃতি অনুযায়ী প্রত্যেক বেলার খাবারের পর মিষ্টি খাওয়ার চল আছে। ব্রিটেনে যেসব খাবারকে ডেসার্ট বলা হচ্ছে একই খাবার বাংলাদেশেও আছে তবে সেগুলো ভিন্ন নামে।

নাহিদ ওসমান বলছেন “দুপুর বা রাতের খাবারের পর মিষ্টি আমাদের খেতেই হয়। সেটা সব সময় চল ছিল। তবে এখন মানুষ স্বাস্থ্য সচেতনতার কারণে হয়ত মিষ্টি খায়না। ব্রিটেনে যেটাকে বলা হয় রাইস পুডিং এখানে সেটাকে বলি ক্ষীর। সেটা খাওয়ার চল আমাদের এখানে আছে” ।

তিনি আরো বলছেন “প্রতিটি দেশের একটা কালচার আছে, আমাদের খাবারের মধ্যে তিতা কোন খাবার দিয়ে অনেকেই শুরু করেন। শেষ হয় হয়ত মিষ্টি বা রসগোল্লা দিয়ে”।

নাহিদ ওসমান মন্তব্য করেন ব্রিটেনের ডেসার্ট বা খাদ্যাভ্যাসের সংস্কৃতির সাথে বাংলাদেশের খাদ্যাভ্যাসের সংস্কৃতি মেলাতে যেয়ে নাদিয়া হুসেইন ভুল করেছেন।

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর