গরুর মাংস রাখায় হত্যা: পরিবারের বিরুদ্ধেই মামলা

ছবির কপিরাইট AFP
Image caption গরুর মাংস রাখার অভিযোগ তুলে পিটিয়ে হত্যা করা হয় মোহাম্মদ আখলাককে

বাড়িতে গরুর মাংস লুকিয়ে রাখার গুজব ছড়িয়ে গত বছর ভারতের উত্তরপ্রদেশে যে ব্যক্তিকে গ্রামবাসীরা পিটিয়ে মেরে ফেলেছিল, সেই মহম্মদ আখলাকের পরিবারের বিরুদ্ধেই এবার মামলা করার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

মহম্মদ আখলাকের পরিবার একটি বাছুরকে গলা কেটে হত্যা করেছিল – তাদের এক প্রতিবেশীর করা এই অভিযোগের ভিত্তিতে এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে দিল্লির কাছে বিসহাডা গ্রামে শতাধিক লোক ওই গ্রামেরই বাসিন্দা মহম্মদ আখলাককে পিটিয়ে মেরে ফেলে, আধমরা করে ফেলা হয় তার ছেলে দানিশকে।

এখন নিহত ওই ব্যক্তির স্ত্রী ও মায়ের বিরুদ্ধেই পুলিশকে ফৌজদারি মামলা দায়ের করতে বলা হয়েছে – কারণ মারা যাওয়ার দুদিন আগে মহম্মদ আখলাক ও তার ভাই মিলে না কি একটি বাছুরকে মেরেছিলেন।

এক হিন্দু প্রতিবেশী দাবি করছেন তিনি সেটা দেখেছেন এবং আদালতে তার করা পিটিশনে মি আখলাকের হত্যায় অভিযুক্তরাও সমর্থন জানাচ্ছেন।

উত্তরপ্রদেশে গরুর মাংস খাওয়া নিষিদ্ধ নয় – কিন্তু গরু জবাই করার জন্য সর্বোচ্চ সাত বছরের জেল পর্যন্ত হতে পারে।

চিঠিপত্র: সম্পাদকের উত্তর